বিজ্ঞাপন

Subrata Paul Retires: গ্লাভসজোড়া তুলে রাখলেন ভারতীয় ফুটবলের স্পাইডারম্যান, সুব্রতর অবসরে শেষ হল বর্ণোজ্জ্বল অধ্যায়

ইনস্টাগ্রাম (Instagram) অ্যাকাউন্ট থেকে ইন্ডিয়ান সুপার লিগ (Indian Super League- ISL) সুব্রতর ছবি দিয়ে লেখেন, 'একটি সুন্দর অধ্যায় শেষ করলেন সুব্রত পাল।'

ভারতীয় ফুটবলের ‘স্পাইডারম্যান’ (Spiderman) আর নামবেন না মাঠে। ৩৭ বছর বয়সেই অবসর গ্রহণ করলেন বাংলার সুব্রত পাল (Subrata Paul)। ২১ বছর ধরে মাঠ কাঁপানোর পর এবার বিদায় নিচ্ছেন এই ফুটবলার। দুই দশক পর তাঁর অবসরে মন খারাপ অনুরাগীদের। আর দেখা যাবে না সেই ‘ম্যাজিক’ বলছেন অনেকে।

বিজ্ঞাপন

তাঁর ঝুলিতে রয়েছে বেশ কয়েকটি নামীদামী অ্যাওয়ার্ড, যার স্মৃতি নিয়েই মাঠ ছাড়ছেন তিনি। ২০১৬ সালে পেয়েছিলেন অর্জুনা অ্যাওয়ার্ড (Arjuna Award)। এর আগে ২০০৮ সালে পেয়েছিলেন ইস্টবেঙ্গল ‘প্লেয়ার অফ দা সিজন অ্যাওয়ার্ড’ (East Bengal, Player of the season award)। কলকাতার সোদপুর নিবাসী এই ফুটবলারের নাম ছড়িয়ে গিয়েছে গোটা বিশ্বে।

২০০২ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত টাটা ফুটবল অ্যাকাডেমিতে মাঠে নামা শুরু হয় তাঁর। তাঁর ফুটবল জীবন শুরু হয় ২০০৪ সালে মোহনবাগানের (Mohunbagan) হাত ধরে। ২০০৭ সালে ইস্টবেঙ্গল (East Bengal) এর হয়েও খেলেন ভারতীয় ফুটবলের স্পাইডারম্যান। এরপর বিভিন্ন ছোট বড় ক্লাবের সঙ্গে খেলেছেন তিনি। আন্তর্জাতিক ফুটবল কেরিয়ারে অন্যতম ছিল ইন্ডিয়া আন্ডার ২৩ লিগ (India-U23)। ২০০৭ সালে নেহেরু কাপ (Nehru Cup) চলাকালীন তাঁর দুর্ধর্ষ গোলকিপিং (Goalkeeping) কার্যত অবাক করে দেয় টিমের সবাইকে। সুব্রতর হাত ধরেই প্রথমবার ফাইনালে (Final) ওঠে ভারত। ২০০৯ সালে নেহেরু কাপ জেতার পেছনেও এই বাঙালি ফুটবলারের অবদান ভোলার নয়। একইভাবে ২০১১ সালে এএফসি এশিয়ান কাপ (AFC Asian cup) এ-তিনি টিমে গোলকিপার হিসেবে নিজের রেকর্ড বজায় রাখেন। ইন্ডিয়ান সুপার লিগে তাঁর পথচলা শুরু হয় ২০১৪ সালে। গোটা ইন্ডিয়ান সুপারলিগ (Indian super league) কেরিয়ারে তাঁর ঝুলিতে আসে ২৬৯টি সেভ।

বিজ্ঞাপন

২০১১ সালের দোহায় এশিয়া কাপ চলাকালীন তাঁর গোলকিপিং নজর কাড়ে অনেক বড় কিংবদন্তীদের সামনে। এছাড়াও সেই গোটা টুর্নামেন্টে ৩৫ এর ও বেশি সেভ (Save) করেন। তাঁর বর্ণাঢ্যময় অধ্যায় শেষ হল এবার। ইনস্টাগ্রাম (Instagram) অ্যাকাউন্ট থেকে ইন্ডিয়ান সুপার লিগ (Indian Super League- ISL) সুব্রতর ছবি দিয়ে লেখেন, ‘একটি সুন্দর অধ্যায় শেষ করলেন সুব্রত পাল।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন



Leave a Reply

বিজ্ঞাপন
Back to top button