বিজ্ঞাপন

ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি ৫০০০ টাকা! মুখ্যমন্ত্রী বড় ঘোষণা…

Mamata Banerjee in Alipurduar: রবিবার আলিপুরদুয়ার শহরের প্যারেড গ্রাউন্ড থেকে জেলার ৬ হাজার মানুষকে সরকারি পরিষেবা দেওয়া হয়।

রবিবার ডুয়ার্সরানী আলিপুরদুয়ারে প্যারেড গ্রাউন্ডে জনসভায় যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)। সেই প্রশাসনিক সভা থেকে লোকসভা নির্বাচন নিয়ে তেমন সরাসরি কোনও বার্তা না দিলেও কিন্তু এক বড় ঘোষণা করেন তিনি৷ প্রকল্পের কথা বারবার করে আওড়ানোর পর তিনি এলেন নতুন এক বার্তা নিয়ে। কন্যাশ্রী, লক্ষ্মীর ভাণ্ডার, বেকার ভাতা, সবুজশ্রীর মতো প্রকল্পের কথা বলার পর মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করলেন, ১২ ডিসেম্বর নগদ ৫ হাজার টাকা পেতে চলেছেন প্রায় ১ কোটি ২০ লক্ষ কৃষক৷

বিজ্ঞাপন

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘প্রত্যেক বছর কৃষকদের সহায়তায় ১০ হাজার টাকা অনুদান দিয়ে থাকে রাজ্য সরকার৷ বছরে ২ দফায় এই টাকা দেওয়া হয়৷ আগামী ১২ ডিসেম্বর রাজ্যের ১ কোটি ২০ লক্ষ কৃষকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে নগদ ৫ হাজার টাকা পৌঁছে যাবে।’

অসময়ের বৃষ্টিতে বহু কৃষকেরই জমির ফসল নষ্ট হয়েছে৷ সেই মুহূর্তে সবজির দাম ছিল ধরা ছোঁয়ার বাইরে। তাই মমতা হঠাৎ এই সিদ্ধান্তে আশার আলো দেখছেন কৃষক মহলের সকলে। মমতা জানান, যাঁদের জমির ফসল এই বৃষ্টিতে নষ্ট হয়েছে, যাঁদের শস্যবিমা করা রয়েছে তাঁরা সকলেই টাকা পাবেন৷ দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পের মাধ্যমে ১৫ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বর বিভিন্ন প্রকল্পে আবেদন করা যাবে৷ পরিষেবা প্রদান করা হবে ১লা জানুয়ারি থেকে ১৫ জানুয়ারির মধ্যে।

বিজ্ঞাপন

রবিবার আলিপুরদুয়ার শহরের প্যারেড গ্রাউন্ড থেকে জেলার ৬ হাজার মানুষকে সরকারি পরিষেবা দেওয়া হয়। তবে পরবর্তীকালে মোট ২৬ হাজার মানুষকে, চা বাগানের সব শ্রমিকদের জমির পাট্টা দেওয়ার কথাও এই মঞ্চ থেকে ঘোষণা করেন মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)। এখানেই থেমে থাকা নয়, চা শ্রমিকদের জমির পাট্টা, চা সুন্দরী প্রকল্পে বাড়ি দেওয়ার সাথে সাথে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলেও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে ভাইপোর বিয়ে উপলক্ষে পাহাড়ে পারি দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে প্রশাসনিক সভা না করলেও একেবারে গ্রাউন্ড জিরো (Ground Zero) থেকে জনসংযোগ সারেন তিনি। চা বাগানের মহিলাকর্মীদের সঙ্গে চা পাতা তোলার মাধ্যমে সমস্যার কথা শোনেন তিনি। সেখানে একেবারে সেই কর্মীদের মতোই পোশাক পরে তাঁদের অঙ্গ হয়ে ওঠেন মুখ্যমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন



Leave a Reply

বিজ্ঞাপন
Back to top button